ঢাকা, শনিবার , ২৫ নভেম্বর ২০১৭, | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ | ৬ রবিউল-আউয়াল ১৪৩৯

কালকিনিতে শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী ‘কুন্ডুবাড়ির মেলা’

195451mela_kalerkantho_pic

কালীপূজা উপলক্ষে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার পৌর এলাকার গোপালপুর গ্রামের কুন্ডুবাড়িতে শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে দক্ষিণ বঙ্গের সর্ববৃহৎ শতবছরের ঐতিহ্যবাহী কুন্ডুবাড়ির মেলা।

মুল মেলা তিনদিন হলেও চলে সপ্তাহব্যাপী। মেলায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ব্যবসায়ীরা বাঁশ, বেত ও কাঠের আসবাবপত্র, খেলনা ও প্রসাধনীসহ বিভিন্ন সামগ্রী নিয়ে এসেছে। সেই সাথে বিভিন্ন জেলার ক্রেতারা এসেছে পণ্যসামগ্রী কিনতে।

মেলার আয়োজক সুত্রে জানা যায়, আঠারো শতকের শেষের দিকে কালকিনি উপজেলায় কালীপূজা উপলক্ষে পৌর এলাকার গোপালপুর গ্রামের কুন্ডুবাড়িতে কুন্ডুদের পূর্বপুরুষরা কালীপূজার আয়োজন করে। তাদের পূজাকে ঘিরে প্রথমে বাদাম, বুট, খেলনা নিয়ে অল্প কয়েকজন ব্যবসায়ী বসতো। পরে আস্তে আস্তে প্রতিবছর ব্যবসায়ীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। এক সময় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকেও ব্যবসায়ীরা আসতে থাকে তাদের পণ্যসামগ্রী নিয়ে। পরে স্থানীয়রা এর নামকরণ করেন কুন্ডু বাড়ির মেলা। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এ মেলা জমজমাটভাবে হয়ে আসছে।

মেলায় আগত দর্শনার্থী মামুন, জয়া, সাব্বির, নিশিসহ কয়েকজন জানান, “আমরা প্রতিবছরই মেলায় আসি। অনেক ভালো লাগে। বাচ্চাদের জন্য খেলনা কিনেছি। ঘুরে ঘুরে দেখছি।”

যশোর থেকে আসা খেলনা ব্যবসায়ী আসাদ উল্যাহ জানান, “আমি বিগত পাঁচ বছর ধরে এখানে খেলনা বিক্রি করতে আসি। প্রচুর লাভ হয়। কোন ঝামেলাও নেই।”

পূজা ও মেলা উদযাপন কমিটির সভাপতি ভজন চন্দ্র কুন্ডু জানান, “আমাদের পূর্ব পুরুষরা সম্ভবত আঠারো শতকের শেষের দিকে এ মেলার প্রবর্তন করেন। শতবছরের ঐতিহ্যবাহী কুন্ডুবাড়ির মেলা এবছরও শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হবে বলে আশা করছি। এটা দক্ষিণবঙ্গের সর্ববৃহৎ মেলা। এখানে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মানুষ আসে।”