ঢাকা, বুধবার , ১৮ জুলাই ২০১৮, | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ | ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯

গাজীপুরে ‘জে এম বি আস্তানায়’ অভিযান চলছে…

গাজীপুরের মাওনায় নিষিদ্ধ জঙ্গি দল জেএমবির আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘিরে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের (সিটি) উপ কমিশনার মহিবুল ইসলাম আজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, পুলিশ সদর দপ্তরের ইন্টেলিজেন্স উইং ল’ফুল ইন্টারসেপশন সেলের (এলআইসি) সঙ্গে ব্যাকআপ টিম হিসেবে সিটি সদস্যরাও সেখানে আছেন।

শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিম খণ্ড (মাওনা আলহেরা হাসপাতাল) সংলগ্ন ওই দোতলা বাড়িতে রোববার ভোরের আগে অভিযান শুরু করে পুলিশ। দুপুরেও পুলিশ সদস্যদের ওই বাড়ি ঘিরে থাকতে দেখা যায়।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের এডিসি আবদুল মান্নান আজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ওখানে পুরনো জেএমবির একটি আস্তানা আছে বলে আমরা ধারণা করছি। অভিযান শেষ হলে আমরা বিস্তারিত বলব।”।।ওই আস্তানায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক পাওয়া গেছে এবং সেগুলো নিস্ক্রিয় করতে ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী ইউনিটও মাওনা গেছে বলে একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।
বাড়ির মালিক রফিকুল ইসলাম পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত একজন হাবিলদার। তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন, ভোরে পুলিশ আসার পর তার বাসার নিচ তলার ভাড়াটিয়া আব্দুর রহমানকে আটক করে এবং ঘণ্টাখানেক তল্লাশি চালিয়ে ওই ঘর থেকে তিনটি পিস্তল ও চারটি বোমা পাওয়ার কথা জানায়।

পুলিশ একটি পিস্তল আমাকে দেখিয়েছে। তবে বোমাগুলো ভাড়াটিয়ার ঘরেই রেখে গেছে। ঢাকা থেকে পুলিশ এসে নাকি বোমা নিষ্ক্রিয় করবে।”

রফিকুল ইসলাম জানান, আব্দুর রহমান তার স্ত্রী শামসুন্নাহারকে নিয়ে দুই মাস আগে সাড়ে তিন হাজার টাকায় নিচ তলার ওই ঘর ভাড়া নেন। রহমান জানিয়েছিলেন, তিনি পেশায় একজন ড্রাইভার। স্থানীয় একটি রেন্ট-এ কারের প্রাইভেটকার চালান।

বাড়িওয়ালার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী,আটক আব্দুর রহমানের বাড়ি দিনাজপুরের দেবীগঞ্জ উপজেলার কালীগঞ্জ গ্রামে। তবে তার বিষয়ে পুলিশ বিস্তারিত কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি।


%d bloggers like this: