ঢাকা, বুধবার , ১৮ জুলাই ২০১৮, | ৩ শ্রাবণ ১৪২৫ | ৫ জিলক্বদ ১৪৩৯

জুলাইয়ের প্রথমে তৃণমূল নেতাদের নিয়ে বসবেন শেখ হাসিনা

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে এবার তৃণমূলের ওয়ার্ড, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে বর্ধিত সভায়  বসবেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সভায়  ওয়ার্ড, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও মেম্বাররাও থাকবেন। গণভবনে অনুষ্ঠিতব্য এ সভায় জাতীয় নির্বাচনের আগে ৮টি বিভাগের নেতাদের নিয়ে দুই দফায় মতবিবিময় করার কথা রয়েছে। প্রথম দফায় ৪ বিভাগ, দ্বিতীয় দফায় ৪ বিভাগের নেতাদের সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। দলের একাধিক শীর্ষ নেতা  এমনটি আজ২৪কে জানিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, নির্বাচনকে উপলক্ষ করেই তৃণমূল নেতাদের সুসংগঠিত করা, নির্বাচনি প্রস্তুতি নিতে শেখ হাসিনা নির্দেশনা দেবেন। তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলতে চান শেখ হাসিনা। তাই বর্ধিত সভার আয়োজন। সংগঠনকে গতিশীল করা, দ্বন্দ্ব-কোন্দল নিরসন করাসহ আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়ার ব্যাপারে সরাসরি নির্দেশনা জানাতে এবার ওয়ার্ড, ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাদের ঢাকায় ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত  নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একই উদ্দেশ্যে গত ২৩ জুন জেলা, থানা, মহানগর ও পৌরসভার নেতাদের ঢাকায় ডেকে বর্ধিত সভা করে নির্দেশনা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।
দলের নীতি-নির্ধারণী নেতারা জানান, ওই বর্ধিত সভায় রাজনৈতিক সুফল এসেছে। ফলে একেবারে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে বর্ধিত সভা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘দলের নেতাকর্মীদের গতিশীল করা ও আগামী সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নেতাকর্মীদের দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দিতে আবারও বর্ধিত সভার আয়োজন।’ তিনি বলেন, এই বর্ধিত সভার সম্ভাব্য তারিখ ৭ এবং ১৪ জুলাই। প্রথম দফায় ৪ বিভাগের সঙ্গে দ্বিতীয় দফায় বাকি ৪ বিভাগের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন দলীয় প্রধান।’

দলের অপর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান  বলেন, ‘ওয়ার্ড, ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাদের নিয়ে বর্ধিত সভা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা।’ তিনি বলেন, ‘সংগঠনকে গতিশীল করতে ও আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি কিভাবে নিতে হবে তৃণমূলের নেতাদের সে নির্দেশনা দিতেই এ আয়োজন।’

জানতে চাইলে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী  আরও দু’টি বর্ধিত সভা আয়োজনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘সংগঠনকে গতিশীল করা তৃণমূল নেতাদের উদ্বুদ্ধ করতে এই বর্ধিত সভার উদ্দেশ্য।’


%d bloggers like this: