ঢাকা, শনিবার , ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, | ৮ আশ্বিন ১৪২৪ | ২ মুহাররম ১৪৩৯

ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে ৬৯ লাখ টাকা জরিমানা

ড.ইউনুস

ইকোনমি ডেস্ক  : নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ২৫৬ টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। যথা সময়ে কর পরিশোধ না করায় এই জরিমানা করা হয়। এছাড়াও  বিদেশে পাঠানো তার অর্থের সন্ধানে নেমেছে এনবিআর। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, দানকর আইন ১৯৯০ এর ১০ ধারা অনুযায়ী তার উপরোক্ত দানের বিপরীতে সর্বমোট ১৫ কোটি ৩৯ লাখ ১৬ হাজার ৮০০ টাকা কর ধার্য করে এনবিআর। দাবিকৃত এই দানকর তিনি  যথা সময়ে পরিশোধ না করায় আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ৩৭ ধারা অনুযায়ী তার ওপর ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ২৫৬ টাকা জরিমানা করেছে এনবিআর।

জানা গেছে, ড. মুহাম্মদ ইউনূস ২০১১-১২ হতে ২০১৩-১৪ করবর্ষে ড. মুহাম্মদ ইউনূস ট্রাস্ট, ইউনূস ফ্যামিলি ট্রাস্ট ও ইউনূস সেন্টার মোট ৭৭ কোটি ৩৬ লাখ ৬৯ হাজার টাকা দান গ্রহণ করেছে।

মার্কিন বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েট প্রেস (এপি)’র তথ্য অনুযায়ি, গ্রামীণ আমেরিকা (যে সংস্থাটির চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন ড. ইউনূস) ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে এক লাখ থেকে আড়াই লাখ ডলার অনুদান দিয়েছে। গ্রামীণ রিসার্চ নামের আরেকটি প্রতিষ্ঠান (এটিরও চেয়ারম্যান ড. ইউনূস) থেকেও ২৫ হাজার থেকে ৫০ হাজার ডলার অনুদান দেওয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে  এনবিআরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ড. মুহাম্মদ ইউনূসের প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক, প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূস ট্রাস্ট, ইউনূস ফ্যামিলি ট্রাস্ট ও ইউনূস সেন্টারের ১৯টি প্রতিষ্ঠান থেকে বিদেশে তহবিল স্থানান্তরের বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

এর আগে ড. মুহাম্মদ ইউনূস, গ্রামীণ ব্যাংক ও গ্রামীণ সেন্টারের দান গ্রহণের তিনটি প্রতিষ্ঠান ড. মুহাম্মদ ইউনূস ট্রাস্ট, ইউনূস ফ্যামিলি ট্রাস্ট ও ইউনূস সেন্টারের ব্যাংক হিসাব তলব করে চিঠি পাঠিয়েছিল এনবিআর।

ইতোমধ্যে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ড. ইউনূসের বিষয়ে কথা বলেছেন। এছাড়া অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতও অভিযোগ করে বলেছেন, ড. মুহাম্মদ ইউনূস অবৈধভাবে কর সুবিধা নিয়েছেন। তিনি গ্রামীণের মতো যত প্রতিষ্ঠান খুলেছেন, তার অনুকূলে অবৈধভাবে কর সুবিধা নিয়েছেন।

আজ/কেএম/বিটি