ঢাকা, শনিবার , ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, | ৮ আশ্বিন ১৪২৪ | ২ মুহাররম ১৪৩৯

পরিচালক নিয়োগে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমোদন নিতে চান না ব্যাংক মালিকরা

234947bank_logo_kalerkantho_pic

বেসরকারি ব্যাংকের পরিচালক নিয়োগে বিদ্যমান আইনে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নেওয়ার যে বিধান রয়েছে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছে ব্যাংক মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ব্যাংকস (বিএবি)।
রোববার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সাথে এক বৈঠকে ব্যাংক মালিকরা এ দাবি জানান।
বৈঠকের পরে বিএবি সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার বাসসকে জানান, বর্তমানে ব্যাংক কোম্পানী আইন অনুযায়ী বেসরকারি ব্যাংকে পরিচালনা পর্যদের সদস্য এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়োগে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমোদন নিতে হয়। আমরা এর পরিবর্তন চাই।পরিচালক নিয়োগের ক্ষেত্রে কেন্দ্রিয় ব্যাংকের বিদ্যমান বাধ্যবাধকতার পরিত্রাণ চাই।
তিনি বলেন,বেসরকারি ব্যাংকের পরিচালকরা নির্বাচন করেই এই পদে আসেন। সেক্ষেত্রে পুনরায় বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নেওয়ার বাধ্যবাধকতা একটি অতিরিক্ত চাপ।এর থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই।
ব্যাংক মালিকরা আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এর সমাধান দাবি করেন।
তবে এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি বলেন,এই রদবদল করতে হলে বিদ্যমান আইনের পরিবর্তন প্রয়োজন।সেটি সময় সাপেক্ষ। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে যেহেতু নতুন আইন করা সম্ভব নয় তাই এক্ষেত্রে প্রজ্ঞাপন জারি করে যা কিছু করার করতে হবে।তবে সবকিছুই প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে।
ব্যাংকের পরিচালকদের মেয়াদ বাড়ানোর প্রসঙ্গে মুহিত জানান,একটি নির্দিষ্ট বয়সসীমা পর্যন্ত এ মেয়াদ বাড়ানো হতে পারে।এক্ষেত্রে তা হতে পারে ১০ থেকে ১৫ বছর।
বৈঠকে ব্যাংক মালিকরা শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে অর্থ দেওয়ার ক্ষেত্রে আপত্তি জানিয়েছেন। কারণ শ্রমিক বলতে যা বোঝায় ব্যাংক কর্মচারীরা সেই ক্যাটাগরিতে পড়েন না বলে মনে করেন ব্যাংক মালিকরা।
বৈঠকে বিএবি সদস্যরা ছাড়াও ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সচিব মো. ইউনুসুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।