ঢাকা, শুক্রবার , ২০ অক্টোবর ২০১৭, | ৫ কার্তিক ১৪২৪ | ২৯ মুহাররম ১৪৩৯

প্রত্যেক শিশুকে ঘরে ঘুম পাড়ানোর দায়িত্ব নিলেন চুমকি

মেহের আফরোজ চুমকি

স্টাফ রিপোর্টার ● দেশের কোনো শিশু যেন রাস্তায় মানবেতর জীবন যাপন করতে না হয় সে জন্য সরকার প্রকল্প গ্রহণ করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। তিনি বলেন, পথশিশু বলে আর কিছু থাকবে না। সরকারের এই লক্ষ্য বাস্তবায়ন করতে সমাজের সব স্তরের মানুষের সহযোগিতা চান প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী রবিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২৬নং ওয়ার্ড কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট, তেজকুনী পাড়া এলাকার পথশিশুদের নিয়ে কাজ করে এমন কিছু সংগঠন ও উত্তর সিটি করপোরেশনসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি’র সভাপতিত্বে সভায় আশার আলো সোসাইটি, অ্যাসিসটেন্ট ফর স্লাম ডুয়েলারস; অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন (মজার ইশকুল); অপরাজেয় বাংলাদেশ; প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন’র প্রচেষ্টা স্কুল; ইনসিডিন বাংলাদেশ; ব্রেকিং দ্যা সাইলেন্স); আপন, বাংলাদেশ প্রতিবন্ধী ফাউন্ডেশন, দুস্থ সহায়তা কেন্দ্র, দ্যা ইউথ ফাউন্ডেশনসহ অনেক সামাজিক সংগঠন অংশগ্রহণ করে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২৬নং ওয়ার্ড ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কমলাপুর এলাকাকে পথশিশু মুক্ত করা হবে। তারপর পর্যায়ক্রমে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সকাল ওয়ার্ডের পথশিশুকে পুনর্বাসনের জন্য স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছে সরকার।

তিনি বলেন, প্রয়োজনে নদীভাঙ্গন এলাকার মানুষের জন্য বিকল্প আবাসনব্যবস্থা আগে থেকে নির্ধারণ করার চিন্তা করছে সরকার। নদী ভাঙ্গনের ফলে রাজধানীতে পথশিশুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিছুসংখ্যক মাদক ব্যবসায়ী ও ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী পথশিশুদের জিম্মি করে তাদের স্বার্থে পথশিশুদের ব্যবহার করছে। এই সব অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আলোচনাসভার শুরুতে পথশিশুদের নিয়ে এক সমীক্ষার উপর প্রতিবেদন পেশ করেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নারী নির্যাতন প্রতিরোধে মাল্টিসেক্টরাল প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. আবুল হোসেন।

সমীক্ষায় বলা হয়, দরিদ্রতা, আশ্রয়ের অভাব, ভিন্ন পরিবার, পিতা মাতার মৃত্যু, আবাসন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, ভূমিহীনতা প্রভৃতি কারণে পথশিশুর সংখা বৃদ্ধি পায়।

আজ/বিএস/৩০৭

  • শুনে তো ভালোই লাগে।
    কিন্তু জানি,এর বাস্তবায়ন কোন দিনও হবে না!