ঢাকা, বুধবার , ২৪ জুলাই ২০১৯, | ৯ শ্রাবণ ১৪২৬ | ২০ জিলক্বদ ১৪৪০

অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ ট্রাম্পের ফাউন্ডেশন

তহবিল তসরুফসহ গুরুতর অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাতব্য প্রতিষ্ঠান। মঙ্গলবার(১৮ ডিসেম্বর) ট্রাম্প ফাউন্ডেশন বন্ধের ওই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন নিউ ইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল বারবারা আন্ডারউড। বিষয়টি উঠে এসেছ ব্রিটিশ গণমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে।

ফাউন্ডেশনের হাতে এখন যে অর্থ আছে তা অ্যাটর্নি জেনারেলের তত্ত্বাবধানেই অন্য দাতব্য সংস্থাকে দিয়ে দেওয়া হবে।

ট্রাম্প ও তার তিন সন্তান ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক লাভের উদ্দেশ্যে ওই ফাউন্ডেশনের অর্থ বেআইনিভাবে ব্যবহার করেছিলেন অভিযোগ করে গত জুনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে নিউ ইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেলের দপ্তর।

অন্যদিকে ট্রাম্প ফাউন্ডেশনের আইনজীবী বলে আসছিলেন, অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ বিষয়টিকে রাজনৈতিক চেহারা দিতে চাইছেন।

আন্ডারউড মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বলেন, ফাউন্ডেশন বন্ধ হয়ে গেলেও ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার মেয়ে ইভাঙ্কা, ছেলে ডোনাল্ড জুনিয়র ও এরিকের বিরুদ্ধে মামলা চলেবে।

“যে পরিমাণ অনিয়ম ও অবৈধ কাজ ওই ফাউন্ডেশনের নামে হয়েছে তা অবাক করার মত। ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারে অবৈধভাবে ফাউন্ডেশনকে জড়ানো হয়েছে। অবৈধভাবে নিজেদের মধ্যে অর্থের হাতবদল হয়েছে বার বার। সবকিছু দেখলে মনে হয়, ওই ফাউন্ডেশন আসলে ট্রাম্পের রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক স্বার্থের একটি চেকবই ছাড়া আর কিছু ছিল না।”

অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস জানিয়েছে, ট্রাম্প ফাউন্ডেশনকে এখন বিচারিক তত্ত্বাবধানে বন্ধ করে দেওয়া হবে। ফাউন্ডেশনের বাকি সম্পদ অন্য দাতব্য সংস্থার মাধ্যমে দান করে দেওয়া হবে।
ট্রাম্প তার বহুল বিক্রিত বই ‘দি আর্ট অব দি ডিল’ বিক্রির টাকায় ১৯৮৭ সালে নিজের নামে এই দাতব্য প্রতিষ্ঠান খোলেন। ২০০৫ সালের পর থেকে এই ফাউন্ডেশন ট্রাম্পের বন্ধু আর সহযোগীদের কাছ থেকেও তহবিল নিতে শুরু করে।

এ ফাউন্ডেশনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পরিচালিত হত ট্রাম্পের স্বাক্ষরে, অনুদান ছাড় করার ক্ষমতাও কেবল তার হাতেই ছিল। তবে ২০০৮ সালের পর নিজের পকেট থেকে আর কোনো টাকা ওই ফাউন্ডেশনে দেননি নিউ ইয়র্কের এই ধনকুবের।

আজ ২৪ বিদেশ ডেস্ক


%d bloggers like this: