ঢাকা, বুধবার , ১৭ জুলাই ২০১৯, | ২ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৩ জিলক্বদ ১৪৪০

ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়

রাসেদুজ্জামান সাজু ● কথায় আছে, ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়। এমনটাই প্রমাণ করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের সন্তান ফেরদৌস বিপুল। বাবা-মায়ের আদরের ছেলে বিপুলের ছোটবেলা থেকে ইচ্ছে সে একজন মডেল হবে। স্কুলে পড়াশোনা করার সময় বিভিন্ন স্টাইলে নিজের ছবি তুলে বন্ধুদের দেখাতো। আর তারা হাসি-ঠাট্টায় উড়িয়ে দিতো। এবং সে নীরবে সব সহ্য করতো।

ফেরদৌস বিপুল বাবা-মায়ের বড় ছেলে। পরিবারের ইচ্ছে বিপুলকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াবে। তাই এসএসসি শেষ হবার পর তাকে ঠাকুরগাঁও পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে ভর্তি করে দেন। সেখান থেকে ফুড থেকে ডিপ্লোমা শেষ করার পর ঢাকায় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএসসিতে ভর্তি হয়।

বিপুল জানায়, সে যখন ঢাকায় পড়াশোনা করতে আসে তখন এক বড় ভাইয়ের মাধ্যমে জানতে পারে মডেল হওয়ার জন্য কি করতে হয়। তার পরামর্শে সে আপন ভুবন নামে একটি প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করার পর। সেখান থেকে পদচারণা শুরু হয় মডেলিং জগতে।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে বিপুল ঢাকার বিভিন্ন ব্রান্ডের শপিংমলের টিশার্ট, পাজ্ঞাবিসহ বাহারি পোশাকের মডেল হয়ে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন। সেগুলো হলো ফ্যাশন হাউস, স্টাইল পার্ক, বিশ্বাস ক্যাস্ট, স্টাইল মেটসহ অনেক শপিংমলে। এছাড়াও বিনোদন ম্যাগাজিনেও কাজ করছেন।

বিপুল সম্পর্কে কয়েকজন তরুণদের সঙ্গে কথা বললে তারা জানান, আমাদের ঠাকুরগাঁওয়ে তরুণ প্রজন্মের অহংকার হলো বিপুল। তার এগিয়ে চলা আমাদের একান্ত কাম্য। ফেরদৌস বিপুল জানায়, ভবিষ্যত আমি ভিডিও মডেল গানে কাজ করা ও একজন ভালো ইঞ্জিনিয়ার হতে চাই।

আজ/আরএস/৩০১


%d bloggers like this: