ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ | ১৩ জমাদিউস-সানি ১৪৪০

উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পক্ষে বিএনপির তৃণমূল

আগামী মার্চের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে বিএনপি’র তৃণমূল পর্যায়ে ব্যাপক উৎসাহ দেখা গেছে। তবে বিপরীত অবস্থানে দলটির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। একাদশ সংসদ নির্বাচনের তিক্ত অভিজ্ঞতার প্রেক্ষাপটে শীর্ষ নেতারা উপজেলা নির্বাচনে যেতে আগ্রহী নন। কিন্তু তৃণমূলের নেতারা বলছেন, স্থানীয় নির্বাচনে জয় ঘরে তোলার জন্য পূর্ণ প্রস্তুতিই তাদের রয়েছে।

জাতীয় নির্বাচন শেষে গেল সপ্তাহে নির্বাচন কমিশন উপজেলা নির্বাচন নিয়ে তাদের প্রস্তুতির কথা জানান দেওয়ার পর থেকে তৃণমূলের বিএনপি’তে শুরু হয়েছে এমনই উৎসাহের জোয়ার। এক্ষেত্রে তারা সর্বশেষ সংসদ নির্বাচন নয়, হিসাব কষছেন, ৫ বছর আগের উপজেলা নির্বাচনে তাদের ভোটের প্রাপ্তিকে।

ময়নমনসিংহ সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামরুল ইসলাম মো ওয়ালিদ বলেন, ‘আমি গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী থেকে ৫০ হাজার ভোট বেশি পেয়েছিলাম। দল যদি নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এবং মনোনয়ন দিলে আমি অবশ্যই নির্বাচন করবো।’

বিএনপির বেশ কয়েকজন তৃণমূলের নেতা বলেন, ‘আমরা মানসিকভাবে প্রস্তুত। যদি দল নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেয় আমরা অংশগ্রহণ করবো।’

কিন্তু তৃণমূলের এই হিসাব-নিকাশ মানতে পারছেন না কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তাদের ভাষায় সম্প্রতি সংসদ নির্বাচনে যা হয়েছে, আসন্ন উপজেলা নির্বাচন তা থেকে ভিন্ন কিছু হবে না। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশে এই মুহূর্তে নির্বাচন বলে কিছু নাই। যেখানে নির্বাচন নাই সেখানে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার আলোচনা থাকে না।’

গ্রহণযোগ্য নির্বাচন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার বিষয়টিকেই জরুরি হিসেবে দেখছেন কেন্দ্রের নেতারা। আমির খসরু বলেন, ‘কঠিন সময় এখন। জনগণ নির্বাচনের মাধ্যমে মালিকানা ফিরে পেতে চায়।’

৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের পর অনিয়মের অভিযোগ তুলে ফল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপি’সহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। জোটের নির্বাচিত ৮ এমপিও শপথ নেবেন না বলে ঘোষণা এসেছে।

আজ ২৪ প্রতিবেদক, ঢাকা


%d bloggers like this: