ঢাকা, বুধবার , ১৭ জুলাই ২০১৯, | ২ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৩ জিলক্বদ ১৪৪০

চাইলেই মনের মতো কাজ করা যাচ্ছে না

ঈদুল আজহায় একগুচ্ছ নাটকের সঙ্গে থাকছেন অভিনেতা ও নির্মাতা সালাহউদ্দিন লাভলু। চারটিতে করছেন অভিনয়; পরিচালনা করছেন চারটি। ঈদে বিভিন্ন চ্যানেল দেখাবে সেগুলো। নাটকগুলোর শুটিংয়ের জন্য তাঁকে রীতিমতো বাস করতে হচ্ছে পুবাইলের চটের আগায় শুটিং স্পটে। সেখান থেকে মুঠোফোনে কথা বললেন তিনি। জানালেন চলমান কাজ ও আগামী কাজের পরিকল্পনা।
নাটকের নিচে চাপা পড়েছেন শুনলাম?

অনেকটা সে রকমই। একই জায়গায় কয়েকটি নাটকের শুটিং চলছে। কখনো ক্যামেরার পেছনে, কখনো সামনে কাজ করতে হচ্ছে। ভীষণ চাপ যাচ্ছে। ঈদের সময় এলেই বোঝা যায় যে আমাদের শিল্পীর সংকট আছে।
সেই সংকট কাটাতেই কি নিয়মিত অভিনয়ে ফিরতে চাইছেন?
ঠিক তা নয়। আমি তো ক্যামেরার সামনেরই মানুষ। নাটক বানাতে ব্যস্ত হয়ে পড়ায় অভিনয়টা কমিয়ে দিয়েছিলাম। ভালো গল্প, পাণ্ডুলিপি ও পরিচালক পেলে আবার নিয়মিত অভিনয় করব।
তাহলে পরিচালনার কী হবে?
অভিনয় করব মানে নাটক বানানো থেকে পুরোপুরি সরে যাচ্ছি না। পরিচালনাও চালিয়ে যাব।
সিনেমা বানাচ্ছেন কবে?
বেশ কয়েকজন প্রযোজকের সঙ্গে কথাবার্তা হয়েছে। কিন্তু সময় মিলছে না, পাণ্ডুলিপিও মনঃপূত হচ্ছে না। ঈদের পর ব্যস্ততা একটু কমলে পাণ্ডুলিপি নিয়ে বসব। দু-তিনজন মিলে পাণ্ডুলিপি লিখছেন। দেখি কারটা ভালো লাগে।
আপনি যে রসাত্মক নাটকগুলো বানান, সেসবই কি ঘুরেফিরে অন্যরা বানাচ্ছেন?
দর্শকদের অনেকেই আমাকে একই কথা বলেছেন। চ্যানেলগুলোয় হাসির নাটকের চাহিদা থাকে। পাশের দেশের বাংলা চ্যানেলগুলোতে কি সবই হাসির নাটক হয়? দর্শক কিন্তু সেগুলো দেখছেন। আমরা এমন একসময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি, চাইলেই নিজের মনের মতো কাজ করা যাচ্ছে না।

সাক্ষাৎকার: রাসেল মাহ্‌মুদ

সূত্র : প্রথম আলো


%d bloggers like this: