ঢাকা, শনিবার , ২৩ মার্চ ২০১৯, | ৯ চৈত্র ১৪২৫ | ১৫ রজব ১৪৪০

চীনকে মোকাবিলায় ৫ দেশে গ্রাউন্ড স্টেশন করছে ভারত

চীনের প্রভাব কমাতে বাংলাদেশসহ প্রতিবেশি পাঁচ দেশে গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপন করছে ভারত। ভুটান, নেপাল, মালদ্বীপ, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কায় এসব গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপনা করা হবে। একইসঙ্গে দেশগুলোতে ৫০০ এর বেশি ছোট ছোট টার্মিনাল স্থাপন করবে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (ইসরো)। খবর ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধি ছাড়াও দিল্লির এমন পদক্ষেপে আদতে ভারতেরই লাভ হবে। এসব স্টেশন এবং টার্মিনালের সাহায্যে টেলিভিশন সম্প্রচার, টেলিযোগাযোগ, ইন্টারনেট, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও টেলি-মেডিসিনের সুবিধা পাওয়া যাবে।

এই প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিটি দেশে ভারতের খরচ হবে ৫ থেকে ৬ কোটি রুপি।

সূত্রের বরাত দিয়ে খবরে আরো বলা হয়, প্রথম গ্রাউন্ড স্টেশনটি ভূটানের রাজধানী থিম্পুতে নির্মাণ করা হবে। আগামী ১৫ জানুয়ারি এর উদ্বোধন হতে পারে।

সূত্র জানায়, ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠান আলফা ডিজাইন টেকনোলজিস এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে, যারা গ্রাউন্ড স্টেশনের সঙ্গে ১০০টি ভিস্যাট (ভেরি স্মল অ্যাপারচার টার্মিনাল) সংযোগের বিষয়টি দেখভাল করছে।

ফলে ভূটানের প্রত্যন্ত এলাকার মানুষজন প্রথমবারের মতো টেলিভিশন সম্প্রচার দেখতে পারবেন বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

ধারণা করা হচ্ছে, স্যাটেলাইটের ওপর নজরদারির জন্য তিব্বতে চীনের যে স্থাপনা রয়েছে তা মোকাবিলায় থিম্পুতে এই গ্রাউন্ড স্টেশন তৈরি করছে ভারত।

ইসরো’র চেয়ারম্যান শিবান কে. বলেন, আমাদের স্যাটেলাইট সার্ভিসের সুফল নিতে সাহায্য করতে এসব দেশে আমরা লোকজন পাঠাবো। আমাদের এই ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয়ে গত ১২ ডিসেম্বর দিল্লিতে এসব দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেছি।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশের একটি দল ওই প্রজেক্ট চূড়ান্ত করতে ভারত সফর করেছে। বাংলাদেশজুড়ে কমপক্ষে ১০০টি টার্মিনাল থাকবে এবং সম্ভবত ঢাকায় একটি বড় গ্রাউন্ড স্টেশন তৈরি করা হবে।

আলফা ডিজাইনের সিএমডি কর্নেল (অব.) এইচএস শংকর বলেন, আমাদের ট্র্যাক রেকর্ড বিবেচনায় নেওয়ায় ইসরোকে ধন্যবাদ, আমরা এই পাঁচ দেশে এই প্রজেক্ট বাস্তবায়নের অংশীদার হবো। আমরা সব দেশেই কাজ শুরু করেছি, তবে ভূটান আমাদের অগ্রাধিকার।

এদিকে মালদ্বীপের জনবসতি থাকা ২০০টি দ্বীপের মধ্যে ১০০টি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সেন্টার প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে দেশটি আগ্রহ প্রকাশ করেছে। ভুটান, বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের প্রজেক্ট শুরু এবং তা তিন মাসের মধ্যে সম্পন্ন হওয়ার পর, নেপাল ও শ্রীলঙ্কায় কাজ শুরু হবে।

অন্যদিকে আফগানিস্তানেও ১০০টি টার্মিনাল এবং একটি গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপনের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় ওই সূত্রটি।

তবে নিরাপত্তার কারণে আপাতত ওই প্রজেক্ট শুরু করা হবে না।


%d bloggers like this: