ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৬ জুলাই ২০১৯, | ১ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১২ জিলক্বদ ১৪৪০

ছিটকে আসা চাঁদের কণা, কিনতে লাগলো কয়েক কোটি

ছিটকে আসা

চাঁদ থেকে পৃথিবীতে ছিটকে আসা চাঁদের কণা। হাজার হাজার বছর আগে চাঁদ থেকে ছিটকে এসে আছড়ে পড়েছিল পৃথিবীতে। বড়ই দুর্লভ, দুষ্প্রাপ্য সেই মহাজাগতিক বস্তুটির দাম নিলামে উঠল প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা। ওই দামেই বিকিয়ে গেল মহাজাগতিক বস্তুটি। যা আসলে বিশাল একটি উল্কার অংশবিশেষ।

চাঁদের কোনও বায়ুমণ্ডল নেই। তাই চাঁদের মাটিতে মাঝে মধ্যেই আছড়ে পড়ে ছোট, বড় উল্কাপিণ্ড। মহাকাশে তীব্র গতিতে ছুটতে ছুটতে সেই উল্কাপিণ্ড চাঁদের মাটিতে আছড়ে পড়লেই তার অভিঘাতে ছিটকে বেরিয়ে আসে প্রচুর নুড়িপাথর। চাঁদের অভিকর্ষ বল ততটা জোরালো নয় বলে সেই সব নুড়িপাথর অনেক সময়েই আর চাঁদে ফেরত যায় না। সেগুলি মহাশূন্যে ভাসতে থাকে। ওই ভাবে ভাসতে ভাসতেই সেগুলি কখনও পৃথিবীর কাছাকাছি এসে পড়লে আমাদের এই গ্রহের অত্যন্ত জোরালো অভিকর্ষ বলের টানে সেগুলি পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়ে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, এমনই একটি মহাজাগতিক বস্তু কয়েক হাজার বছর আগে চাঁদ থেকে ছিটকে বেরিয়ে এসে আছড়ে পড়েছিল পৃথিবীতে। হালে সেটি উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকার মরিচুনিয়া থেকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের সময় ৬টি অংশে ভেঙে যায় সেটি। তবে যেটা বিস্ময়ের তা হল, ওই ভেঙে যাওয়া অংশগুলি আবার খুব সুন্দর ভাবে জুড়ে দেওয়া সম্ভব হয় খুব অনায়াসেই। তাই এর নাম দেওয়া হয় ‘দ্য মুন পাজল’

প্রাথমিক অনুমান ছিল, খুব বেশি হলে ৫০ লক্ষ ডলার দর উঠতে পারে তার। কিন্তু সব প্রত্যাশা ছাপিয়ে ৬,১৩,৫০০ ডলার দর ওঠে তার। ভারতীয় মুদ্রায় যার দাম প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা। নিলাম ডেকেছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বস্টনের আর আর অকশন নামে একটি সংস্থা।


%d bloggers like this: