ঢাকা, বুধবার , ১৯ জুন ২০১৯, | ৫ আষাঢ় ১৪২৬ | ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

জন্মদিনের সকাল গানে গানে শুরু বন্যার

শুরুতেই সুরের ধারার শিল্পীদের সমবেত কণ্ঠে গাওয়া হয় ‘তোমার সুরের ধারা’ গানটি। এরপর সুরের ধারার শিল্পীরা একাধিক গান পরিবেশন করেন। এক পর্যায়ে মঞ্চে আসেন সাদী মোহাম্মদ। এরপর এই দুই গুণী শিল্পী মিলে পরিবেশন করেন। রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার বেশ কয়েকটি একক পরিবেশনাও ছিল।

এরপর ইমপ্রেস অডিও ভিশনের ব্যানারে প্রকাশিত রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার একক অ্যালবাম ‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়’ এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

‘কী সুর বাজে প্রাণে’ গানের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হলেও আয়োজন ফুরায়নি। গান শেষ হওয়ার পর মঞ্চে আসেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর। তিনি উত্তরীয় পরিয়ে দেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে। এরপর তিনি গানের রাজার শিল্পীদেরকে মঞ্চে আমন্ত্রণ জানান। গানের রাজার শিল্পীরা সুরের ধারার শিল্পীদের সঙ্গে ‘আলো আমার আলো ওগো আলোয় ভুবন ভরা’ গানটি পরিবেশন করেন। এরপর কেক কাটার মধ্যদিয়ে শেষ হয় রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার জন্মদিনের ছাতিম তলার আয়োজন।

প্রখ্যাত রবীন্দ্র-সঙ্গীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ব্যাপক জনপ্রিয়। রংপুরের মেয়ে বন্যা মা-বাবার উৎসাহে চাচা আবদুল আলীর কাছে গান শেখা শুরু করেন।

পরে গান শেখেন ছায়ানটের ড. সানজীদা খাতুন ও আতিকুল ইসলামের কাছে। বুলবুল একাডেমিতেও গান শিখেছেন।

এছাড়া ভারত সরকারের কাছ থেকে শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে তিনি চলে যান রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত শান্তিনিকেতনে। সেখানে কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, নীলিমা সেন, শান্তিদেব ঘোষ প্রমুখের তত্ত্বাবধানে রবীন্দ্রসঙ্গীত শেখেন।


%d bloggers like this: