ঢাকা, বুধবার , ১৭ জুলাই ২০১৯, | ২ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৩ জিলক্বদ ১৪৪০

টানা জয়ে ভূটনকে হারিয়ে অনুর্দ্ধ ১৮ সাফ ফাইনালে কৃষ্ণা-সানজিদারা

টানা জয়ে

টানা জয়ে অনূর্ধ্ব-১৮ মহিলা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশের কিশোরীরা। দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ। ভুটানকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে প্রতিযোগিতাটির ফাইনাল নিশ্চিত করেছে কৃষ্ণা-সানজিদারা।

থিম্পুতে টানা দুই জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে সেমিফাইনালে নেমেছিল বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ ভুটানকে সমীহ করলেও ম্যাচের শুরুতেই গোল পেয়ে যায় লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। আগের ম্যাচে বেঞ্চে থাকা সানজিদা আক্তার সেমিফাইনালে নামেন প্রথম একাদশে থেকে। আর তার যোগ্য প্রতিদানও দেন দেশকে। ম্যাচ ঘড়ির দ্বিতীয় মিনিটে চমৎকার এক গোলে এই উইঙ্গার এগিয়ে নেন বাংলাদেশকে। ভুটান গোলরক্ষককে এগিয়ে থাকতে দেখে বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত শটে বল জড়িয়ে দেন জালে।

শুরুতেই এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ দ্বিতীয় গোলের জন্য চাপ তৈরি করতে থাকে ভুটানের রক্ষণে। প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক ও দুর্ভাগ্যের জন্য সুযোগগুলো ঠিক কাজে লাগাতে পারছিল না তারা। তবে প্রথমার্ধের বাঁশি বাজার আগমুহূর্তে ব্যবধান ২-০ করেন মিশরাত জাহান। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে কর্নার থেকে উড়ে আসা বল জটলার ভেতর থেকে পেয়ে যান বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক, ফাঁকা রক্ষণের সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল হয়নি মিশরাতের।

২ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যাওয়া বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে নেন কৃষ্ণা রানী সরকার। ৬০ মিনিটে বক্সের ভেতর প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই স্ট্রাইকার। প্রথমার্ধে বেশ কয়েকটি সুযোগ নষ্টের পর অবশেষে সফল হন তিনি।

ফাইনাল প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেলেও আক্রমণের ধার কমেনি লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। বাংলাদেশের মেয়েরা একের পর এক আক্রমণ চালিয়েছে ভুটানের রক্ষণের। তেমনই এক আক্রমণ ঠেকাতে গিয়ে ভুটানের এক ডিফেন্ডার নিজেদের সীমানায় ফাউল করে বসেন বদলি খেলোয়াড় সাজেদা খাতুনকে। তাতে ৮৫ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি থেকে ঠাণ্ডা মাথায় লক্ষ্যভেদ করে বাংলাদেশকে বড় জয় এনে দেন শামসুন্নাহার।

টানা জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করা বাংলাদেশ শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে নেপালের। প্রথম সেমিফাইনালে নেপাল টাইব্রেকারে ভারতকে হারিয়ে নিশ্চিত করেছে ফাইনাল। ৭ অক্টোবর শিরোপার লড়াইয়ে নেপালের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এর আগে অনুর্দ্ধ ১৬ এর ফাইনালে ভালো খেলেও ভারতের মেয়েদের কাছে হেরে রানার্সআপ হয় বাংলাদেশ। এবার কি দাড়ায় তার জন্য কেবল দুই দিনের অপেক্ষা। তবে নিজেদের েস্বাভাবিক খেলা খেললে চ্যাম্পিয়ান হওয়াটা খুব কঠিন হবেনা বলে মনে করেন সবাই।


%d bloggers like this: