ঢাকা, বুধবার , ২৪ জুলাই ২০১৯, | ৯ শ্রাবণ ১৪২৬ | ২০ জিলক্বদ ১৪৪০

পাপারাজ্জির কবলে প্রিন্সেস ম্যারি

প্রিন্সেস ম্যারি
ওয়ার্ল্ড ডেস্ক ● প্রিন্সেসদের বড়ো মাথাব্যাথার কারণ পাপারাজ্জি। তাদের চোখ যতোই এড়োনোর চিন্তা করা হোক, শতভাব আড়াল হওয়া মুশকিল। এই তো শনিবার অস্ট্রেলিয়ার নিউসাউথ ওয়েলসের সমুদ্র সৈকতে পাপারাজ্জির চোখে ধরা পড়ে গেছেন বিকিনি পরিহিত ডেনমার্কের প্রিন্সেস ম্যারি। সঙ্গে ছিলেন তার স্বামী ও ডেনিশ সিংহাসনের পরবর্তী উত্তরাধিকারী ক্রাউন প্রিন্স ফ্রেডরিক। তাদের তিন সন্তান ক্রিস্টিয়ান, ইসাবেলা ও জোসেফাইনও ছিল এ প্রমোদক্ষণে। সার্ফিং করে বেশ ভালো সময়ই কাটিয়েছেন তারা। রাজবধূ ম্যারি মূলত অস্ট্রেলিয়ার অধিবাসী। ম্যারির মা-বাবার বাড়িতেই ছুটি কাটাতে এসেছেন সবাই। নিউজ ডেইলি মেইল।
সমুদ্র সৈকতে বিকিনি পরিহিত ৪৩ বছর বয়স্ক অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত প্রিন্সেস ম্যারিকে দেখা গেছে সার্ফ নিয়ে নিজের স্বামী ও সন্তানদের সঙ্গে মজা করতে। ইচ্ছেমতো সাতরিয়েছেন তিনি। বেশ কয়েকবার তীব্র স্রোত ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছিল তাদের। তবুও বিপজ্জনক কায়দায় সার্ফিং করেছেন তারা। এক পর্যায়ে রাজপুত্র ক্রিস্টিয়ান স্রোতে আটকেও যায়। লাইফগার্ড নিক ম্যালকম তাকে উদ্ধার করেন। তিনি বলেন, ক্রিস্টিয়ান আসলেই খুব ভালো সাতার কাটে। এ কারণেই তীব্র স্রোতের কবলে পড়লেও আতঙ্কিত হয়নি। তাকে আর দশ জনের মতোই উদ্ধার করেছি। সে কি রাজপুত্র কিনা, তা বড় বিষয় নয়। পরে তাকে ব্যক্তিগতভাবে ধন্যবাদ জানান প্রিন্স ফ্রেডেরিক। তবে অনেকে বলছেন নিক ম্যালকম না থাকলে ডেনমার্কের ভবিষ্যত রাজা ক্রিস্টিয়ানের জীবনের হয়তো সেদিনই ইতি ঘটতো।
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
প্রিন্সেস ম্যারি
আজ/ডিএম/১০৩

%d bloggers like this: