ঢাকা, সোমবার , ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, | ৩ পৌষ ১৪২৫ | ৯ রবিউস-সানি ১৪৪০

ফাইনালেও গোলরক্ষক মেহেদী বীরত্ব, পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান বাংলাদেশ

গোলরক্ষক মেহেদী

ফাইনালেও গোলরক্ষক মেহেদী বীরত্ব। টাইব্রেকারে পাকিস্তানকে হারিয়ে বাংলাদেশকে অনুর্দ্ধ-১৫ সাফ ফুটবলের চ্যাম্পিয়ান করেছেন মেহেদী। তিনটি পেনাল্টি ঠেকিয়ে দিয়েছেন এই কিশোর গোলরক্ষক।

ভারতের বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়েও সমতায় এসে এবং পরে টাইব্রেকারে সেমিফাইনালে রুদ্ধশ্বাস জয় পেয়েছিলো বাংলাদেশ। সেই জয়ের নায়ক গোলরক্ষক মেহেদী। ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন দুটি স্পটকিক। কথা দিয়েছিলো কিশোররা পাকিস্তানের বিপক্ষে তারা জীবন দিয়ে হলেও জিতবে। স্ফেই কথা রেখেছে কিশোররা। পাকিস্ইতানকে ফা্নইনালে টা্লইব্ওরেকারে হারিয়ে অনুর্দ্ধ-১৫ সাফ ফুটবলের চ্যাম্পিয়ান। সেমিফাইনালের মতো ফাইনালেও বাংলাদেশের ত্রাতা গোলরক্ষক মেহেদী। পাকিস্তানের তিনটি স্পটকিক ঠেকিয়ে ফাইনালেরও মহানায়ক এই কিশোর গোলরক্ষক।

নির্ধারিত সময়ে দুই দলের খেলা অমীমাংসিত ছিল ১-১ গোলে। আসরের ফাইনাল বলেই রক্ষণে বেশ সতর্কই ছিল পাকিস্তান। রক্ষণাত্মক খেলতে গিয়েই দলটির একটি ভুল ২৫ মিনিটে এগিয়ে দেয় বাংলাদেশকে। লাল-সবুজ ডিফেন্ডার হেলাল উদ্দিনের কর্নার শট হেডে ঠেকাতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালে জড়িয়ে দেন পাকিস্তানি ডিফেন্ডার হাসিভ আহমেদ খান।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সেই গোল শোধ দেয় পাকিস্তান। ৫২ মিনিটে নিজেদের ডি-বক্সে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়কে ফেলে দেন হেলাল উদ্দিন। তাতে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। দুই মিনিট পর স্পটকিকে বাংলাদেশ গোলরক্ষক মিতুল মারমাকে ঠাণ্ডা মাথায় পরাস্ত করেন মোহব উল্লাহ।

তারপর টাইব্রেকার। পেনাল্টি শ্যুটে প্রথমে শট নেয় বাংলাদেশ। কিন্তু প্রথমেই মিডফিল্ডার রাজন হাওলাদারের শট বার উঁচিয়ে বাইরে চলে গেলে শুরু হয় হতাশায়। কিন্তু মেহেদী এসেই কাটান হতাশার মেঘ। পাকিস্তানিদের তিন শট একাই ঠেকিয়ে দেন লাল-সবুজদের বদলি গোলরক্ষক। সতীর্থদের দুটি শট হাতছাড়া হয়েছে ঠিকই, কিন্তু প্রতি শটেই লক্ষ্যে ঝাঁপিয়েছেন মেহেদী। মাঝখানে রবিউল আলমের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলেও গোলরক্ষকের কল্যাণে শিরোপার পথে বাঁধা হতে পারেনি লাল-সবুজদের সামনে।

শিরোপার পাশাপাশি ফেয়ার প্লে অ্যাওয়ার্ডও গেছে বাংলাদেশের ঘরে। সর্বোচ্চ গোলস্কোরার হয়েছেন বাংলাদেশের নিহাত জামান উচ্ছ্বাস। মালদ্বীপ ম্যাচে একাই ৪ গোল করেন লাল-সবুজ ফরোয়ার্ড।

গ্রুপপর্বে মালদ্বীপকে ৯-০ ও স্বাগতিক নেপালকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষচারে পৌঁছেছিল বাংলাদেশ। সেখানে ভারতকে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছায় লাল-সবুজরা। থেমেছে শিরোপা নিজেদের করায়ত্ব করে।

পুরস্কারের সব কিছু নিজেদের করে নেওয়া ফুটবলের কোন টুর্নামেন্টে সব পুরস্কার প্রাপ্তি কোন আসরে কবেই বা দেখেছে বাংলাদেশ।


%d bloggers like this: