ঢাকা, মঙ্গলবার , ২৩ জুলাই ২০১৯, | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৯ জিলক্বদ ১৪৪০

বিদায়ী বছরটা মিথ্যা আর ভুলেই কাটল ট্রাম্পের!

বিদায়ী বছরে দৈনিক গড়ে ১৫টি মিথ্যা কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।বছরটা ট্রাম্পের জন্য ছিল মিথ্যা, ভুল বিবৃতি ও বিভ্রান্তিকর তথ্যের। এসব মিথ্যা কথার বেশিরভাগই বলেছেন ইরান, নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকা এবং সাবেক ফার্স্টলেডি ও ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন সম্পর্কে।

প্রতিদিনই একটার পর একটা টুইট করে মিথ্যার ঝড় তুলেছেন তিনি। গত বছর রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্টের সব বিবৃতি-বার্তা বিশ্লেষণ করে সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে মিথ্যাবাদী বলেছন দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের সাবেক পরিচালক জেমস কোমি। সোমবার তিনি অভিযোগ করেন, ট্রাম্প এফবিআই নিয়ে মিথ্যা বলে আইনের অসম্মান করছেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকার এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে এফবিআই পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব নেন জেমস কোমি। কিন্তু ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের তদন্ত চলাকালে হঠাৎ করেই ২০১৭ সালের ৯ মে জেমস কোমিকে এফবিআই প্রধানের পদ থেকে অপসারণ করেন ট্রাম্প। নিজের অপসারিত হওয়ার ঘটনায় ট্রাম্পের রুশ সংযোগকেই দায়ী করেছিলেন তিনি। সাবেক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিনটনেরও অভিযোগ, কোমির কার্যক্রমের কারণেই তাকে ট্রাম্পের কাছে হারতে হয়েছিল।

কোমি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এফবিআই নিয়ে মিথ্যা বলছেন, তাদের আক্রমণ করছেন, দেশের আইনের শাসনকে আক্রমণ করছেন। এসবের কোনও অর্থ হয় না। হাউস জুডিশিয়ারি ও হাউস ওভারসাইট কমিটির সঙ্গে পাঁচ ঘণ্টার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

আজ ২৪ ডেস্ক


%d bloggers like this: