ঢাকা, বুধবার , ২৪ জুলাই ২০১৯, | ৯ শ্রাবণ ১৪২৬ | ২০ জিলক্বদ ১৪৪০

বুসানে প্রশংসিত ঢাকার অমনিবাস, হল ‌‌’ইতি, তোমারই ঢাকা’র প্রিমিয়ার

বুসানে প্রশংসিত

দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় চলচ্চিত্র উৎসব বুসানে প্রশংসিত হয়েছে বাংলাদেশের প্রথম অমনিবাস চলচ্চিত্র ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’। ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ছবিটির প্রথম প্রদর্শনীতেই মন জয় করে নিয়েছে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত দর্শকদের।
৪ অক্টোবর থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় শুরু হয়েছে ‘বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’-এর ২৩ তম আসর। ৭ অক্টোবর কোরিয়ার স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় লটে সিনেমা সেন্টাম সিটিতে ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয় ১১ নির্মাতার ছবি ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’। প্রিমিয়ারের সময় থিয়েটারে উপস্থিত ছিলেন প্রজেক্টটির ক্রিয়েটিভ প্রডিউসার আবু শাহেদ ইমন। এছাড়া ১১ নির্মাতার মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাহমুদুল ইসলাম, নূহাশ হুমায়ূন, রাহাত রহমান এবং শুভ।
ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের পর প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন আবু শাহেদ ইমনসহ চার নির্মাতা

অমনিবাসের অন্যতম নির্মাতা শুভ আজ২৪কে জানান, এটা বিশাল এক অভিজ্ঞতা। যে থিয়েটারে ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’ দেখানো হয়েছে তা দর্শকে পরিপূর্ণ ছিলো। সিনেমাটি দেখার পর প্রশ্নত্তোর পর্বও ছিলো। সেখানে সবার ঢাকা নিয়ে কৌতুহল এবং সিনেমাটির প্রতি মুগ্ধতা আমাদের অভিভূত করেছে।

চলচ্চিত্রটি সম্পূর্ণ হয়ে উঠার পেছনে সার্বক্ষণিক লেগে ছিলেন ‘জালালের পিতা’ খ্যাত নির্মাতা আবু শাহেদ ইমন। চলচ্চিত্রটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হওয়ায় নিজের অনুভূতি জানিয়ে ইমন বলেন, এটি ইমপ্রেস টেলিফিল্মের খুব চ্যালেঞ্জিং প্রযোজনা। এরআগে বাংলাদেশে এমন প্রজেক্ট নিয়ে কাজ হয়নি। তবে শেষ ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’র দুর্দান্ত প্রিমিয়ার হলো। বুসানে সামনে আরো দুটি প্রদর্শনী আছে, দর্শকের প্রতিক্রিয়া দেখার অপেক্ষায় আছি।

এর আগে ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’ নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমেও খবর হয়েছে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের নামকরা সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন ‘ভ্যারাইটি’তে বাংলাদেশের প্রথম অমনিবাস চলচ্চিত্রটি নিয়ে গুরুত্বসহকারে সংবাদ ছেপেছে।

ঢাকার নিম্নবিত্ত মানুষের জীবন যাপন, তাদের সংগ্রাম ও বেঁচে থাকার নিরন্তর যুদ্ধ এবং সেই সাথে ঢাকার নিজস্ব এক সংস্কৃতিও ফুটে উঠে ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’ চলচ্চিত্রটিতে। যে ১১ জন নির্মাণ করেছেন ছবিটি তারা হলেন, গোলাম কিবরিয়া ফারুকী, মাহমুদুল ইসলাম, মীর মোকাররম হোসেন, রাহাত রহমান, রবিউল আলম রবি, সৈয়দ সালেহ আহমেদ আহমেদ সোবহান, সৈয়দ আহমেদ সাওকী, তামিন নূর, তানভীর, কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায় ও নুহাশ হুমায়ূন।

৪ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া বুসান চলচ্চিত্র উৎসবটি চলবে ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত। আর এই চলচ্চিত্র উৎসবের ‘অ্যা উইন্ডো অন এশিয়ান সিনেমা’ বিভাগে আগামী ৯ ও ১১ অক্টোবর ইংরেজি ও কোরিয়ান ভাষার সাবটাইটেলে দেখানো হবে চলচ্চিত্রটি।

বুসান উৎসবের ২৩ তম আসরে ৭৯টি দেশ থেকে মোট ৩২৩টি চলচ্চিত্র প্রদর্শনের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। যার মধ্যে ১১৫টি বিশ্ব প্রিমিয়ার এবং ২৫টি ছবির আন্তর্জাতিক প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হবে।


%d bloggers like this: