ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ২৩ মে ২০১৯, | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ | ১৭ রমযান ১৪৪০

লা লিগায় জয়ের স্বাদ পেল রিয়াল

আবারো চোখ রাঙানি দিচ্ছিলো পরাজয়। কিন্তু দলকে বাঁচিয়ে দিলেন দানি সেবাইয়ো। লুকা মদ্রিচের লক্ষ্যভেদ প্রায় বিফলে যেতে বসেছিল। কিন্তু সময় শেষে লা লিগায় দুই ম্যাচ পর জয়ের স্বাদ পেল সোলারির দল।

নতুন বছরের ৩ জানুয়ারি ভিয়ারিয়ালের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র, তিন দিন পর রিয়াল সোসিয়েদাদের কাছে ২-০ গোলে হার। তৃতীয় ম্যাচে রোববার (১৩ জানুয়ারি) রাতে রিয়াল বেতিসকে ২-১ গোলে হারালো রিয়াল মাদ্রিদ।

লুকা মদ্রিচের করা ম্যাচের প্রথম গোলটি অনেকটা সময় এগিয়ে রাখলেও ৬৭ মিনিটে সার্জিও কেনালেস রিয়ালের হাসি কেড়ে নিয়েছিলেন। তবে কাবাইয়োর গোলে শেষ হাসি হেসেই মাঠ ছেড়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা। ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে নিজের সাবেক ক্লাব বেতিসের বিপক্ষে ফ্রি-কিক থেকে গোল করেন এই মিডফিল্ডার।

এমন হাসি ফেরানো জয় সত্ত্বেও শীর্ষে থাকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার চেয়ে ১০ পয়েন্ট পিছিয়ে আছে রিয়াল মাদ্রিদ।

ম্যাচের ১৩ মিনিটে দানি কারভাহালের প্রচেষ্টা থেকে বল পেয়ে টপ কর্নার থেকে বল জড়িয়ে দেন ২০১৮ সালের ব্যালন ডি’অরজয়ী ক্রোয়েট মিডফিল্ডার মদ্রিচ। কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই এগিয়ে থাকার স্বস্তি ভুলতে বসেছিল রিয়াল। আঙুলের ব্যথা নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ঠিক আগে মাঠ ছাড়েন দলের মূল স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা।

বেনজেমার বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ২১ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড ক্রিস্তো। কিন্তু প্রথমার্ধের সেই ছন্দ কিছুতেই ফিরছিল না। বরং এই সুযোগে কানালেসের গোলে খেলায় সমতা ফেরায় বেতিস। যদিও গোলের বাঁশি বাজানোর আগে ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তা নেন রেফারি। তবে রিল্পেতে দেখা যায় কানালেসকে ঠেকাতে কারভাহাল বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার অপেক্ষায় থাকা স্বাগতিক দর্শকদের হতভম্ব করে ম্যাচের জয়সূচক গোল করেন সেবাইয়ো। কাসেমিরোর আদায় করে নেওয়া ফ্রি-কিক নিয়ে বেতিস রক্ষণকে বোকা বানিয়ে গোল করেন এই ফরোয়ার্ড। পুরোটা সময় তাকে স্বাগতিক দর্শকদের দুয়ো সহ্য করতে হয়েছে। কিন্তু শেষে স্বাগতিকদের মুখের হাসি কেঁড়ে নিয়ে প্রতিশোধটাও দারুণভাবেই নিয়েছেন তিনি।

আজ ২৪ স্পোর্টস ডেস্ক


%d bloggers like this: