ঢাকা, মঙ্গলবার , ২৩ জুলাই ২০১৯, | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৯ জিলক্বদ ১৪৪০

শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শনিবার

নেত্রকোনায় শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেহাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ২২ ডিসেম্বর (শনিবার) হবে। দুটি অনুষদভুক্ত তিনটি বিভাগে চারবছর মেয়াদী স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির প্রথম ব্যাচে মোট ৯০জন শিক্ষার্থী ভর্তি করবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্বদ্যালয় সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কাজী নাসির উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রথম ব্যাচে কলা অনুষদের অধীনে বাংলা ও ইংরেজি বিভাগে ৩০জন করে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।

আর সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের আওতায় অর্থনীতি বিভাগেও একই সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে এই শিক্ষাবর্ষে।

এসব বিভাগে ভর্তির জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীদের (মানবিক/বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা) এসএসসি ও এইচএসসিতে সর্বনিম্ন জিপিএ-৩ করে থাকতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (www.shubd.net) আবেদন শুরু হয় ৫ ডিসেম্বর (বুধবার)। যা চলবে ১৮ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) পর্যন্ত চলবে। প্রতি অনুষদে আবেদন ফরমের মূল্য ধরা হয়েছে ৭০০ টাকা, যা বিকাশ ও রকেটে পরিশোধ করা যাবে।

লিখিত ও এমসিকিউ ভর্তি পরীক্ষা চারটি শিফটে ২২ ডিসেম্বর হবে।

১২০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০। প্রতি ভুল উত্তরের জন্য দশমিক ২৫ নম্বর কাটা যাবে। আর ৩০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় পাস নম্বর ১২।

আবেদনের নিয়মাবলী ও ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.shubd.net এ পাওয়া যাবে বলেও ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব অবকাঠামো নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত জেলা শহরের রাজুরবাজারে অবস্থিত কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (টিটিসি) শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হবে।

গত বছরের ২৮ জানুয়ারি সংসদে ‘শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১৮’ পাস হয়। পরে চলতি বছরের জুলাইয়ে ঢাকা বিশ্বদ্যিালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও খ্যাতিমান শিক্ষাবিদ ড. রফিকউল্লাহ খানকে নতুন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য পদে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো নির্মাণসহ সার্বিক উন্নয়নে ২ হাজার ৬৩৭ দশমিক ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক কমিটি (একনেক)। এরই মধ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো নির্মাণের জন্য রামপুর, কান্দুলিয়া, গোবিন্দপুর, রায়দুমরুহী ও সহিলপুর মৌজার ৫০০ একর জমি নির্ধারণ করেছে কর্তৃপক্ষ।

আজ ২৪ প্রতিনিধি, নেত্রকোনা


%d bloggers like this: