ঢাকা, বুধবার , ১৯ জুন ২০১৯, | ৫ আষাঢ় ১৪২৬ | ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

সংরক্ষিত আসন : মনোনয়নপ্রত্যাশীদের আগ্রহ নারী নেতৃত্বেই

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কাছে ফরম বিক্রি শুরু করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার(১৫ জানুয়ারি) সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ ফরম বিক্রি শুরু হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ফরম বিক্রি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ জানান, নির্বাচন কমিশন নারী আসনে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার আগ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি চলবে। প্রতিটি ফরমের জন্য নেওয়া হচ্ছে ৩০ হাজার টাকা করে।

এদিকে সকালেই ফরম কেনা শেষে যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তার বলেন, নারীরা সচেতন হচ্ছে। তৃণমূলে নারীদের রাজনীতির বিভিন্ন কর্মকা-ে অংশগ্রহণ বাড়ছে। তাই প্রতিযোগিতা বেশি। এখান থেকেই নারী নেতৃত্ব তৈরি হবে। তাই নারী নেতৃত্ব তৈরিতেই আমাদের এতো আগ্রহ।

বাংলাদেশের ৩৫০ আসনের সংসদে ৫০টি আসন নারীদের জন্য সংরক্ষিত। ৩০০ আসনে সরাসরি ভোট হলেও সংরক্ষিত আসন বণ্টন হয় ভোটে জয়ী দলগুলোর আসন সংখ্যার অনুপাতে। আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে এবার আওয়ামী লীগ ৪৩টি, জাতীয় পার্টি চারটি, বিএনপি একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে একটি সংরক্ষিত আসন পেতে পারে।

নির্বাচন কমিশন এরই মধ্যে জানিয়েছে, ১৭ ফেব্রুয়ারি সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। এ নির্বাচনের ভোটের জন্য একটি দিন রাখা হলেও ফল জানা যায় তার আগেই। ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের বিপরীতে দল ও জোটগতভাবে সমান সংখ্যক প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া হবে বলে প্রত্যাহারের সময়সীমা পার হওয়ার দিনই তাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হতে পারে।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। ধানমন্ডি কার্যালয়ের দুই ভবনে চারটি করে মোট আটটি বিভাগের ফরম বিক্রি হয়। সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে আসা মনোনয়নপ্রত্যাশীরা লাইনে দাঁড়িয়ে ফরম কেনেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বজন ও কর্মীদের নিয়ে সংরক্ষিত নারী আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ভিড় বাড়তে থাকে। আওয়ামী লীগের টিকিটে একাদশ জাতীয় সংসদে যেতে আগ্রহী এবার অনেকেই। মনোনয়নপ্রত্যাশীরা বলছেন, সচেতনতা ও নারী নেতৃত্ব ওঠে আসার জন্যই সংরক্ষিত আসনের চাহিদা বাড়ছে।

এর আগে নবম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সংসদ সংসদ নাজমা আক্তার জানান, যারা আন্দোলন-সংগ্রাম ও বিশ্বস্ততার পরিচয় দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদেরই মনোনীত করবেন।

আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে ৪৫ বছর ধরে যুক্ত মৌলভীবাজারের হোসনে আরা। ১৯৯৬ সালে তিনি সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের এই সহ-সভাপতি বলেন, দিন দিন রাজনীতিতে নারীরা আগ্রহী হচ্ছেন। আগের চেয়ে এখন অনেক প্রার্থী।

মনোনয়নপ্রত্যাশী ছাড়াও অনেকে প্রার্থীর পক্ষে ফরম সংগ্রহ করতে এসেছেন। তবে যেসব প্রার্থী সরাসরি সংগ্রহ করতে এসেছেন, তাদের আগে দেওয়া হচ্ছে। প্রতিটি ফরমের মূল্য ৩০ হাজার টাকা। ফরম সংগ্রহ করার সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সঙ্গে রাজনৈতিক পরিচয় যুক্তকরে দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

ফরম সংগ্রহ করতে আসা বেশির ভাগই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। এছাড়া তারকাদের মধ্যে চিত্রনায়িকা কবরী সারোয়ারও যান ফরম নিতে। সবারই প্রত্যাশা, দলের সভানেত্রী যোগ্যতা ও কাজ অনুযায়ী মনোনয়ন দেবেন। মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভানেত্রী বনশ্রী বিশ্বাস ১৯৯৬ সাল থেকে সংরক্ষিত আসনের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করছেন। তবে এবার তিনি আত্মবিশ্বাসী নেত্রীর মনোনয়ন পাবেন। তিনি বলেন, নেত্রীর উন্নয়ন কর্মকা-ের সহযোগী হয়ে কাজ করতে চাই।

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক লতিফা বেগম প্রায় ২৫ বছর রাজনীতি করছেন। তিনি বলেন, নারীরা এখন পিছিয়ে নেই। বিভিন্ন পেশার পাশাপাশি রাজনীতিতেও তারা আসতে চান। নারীদের জন্য সংরক্ষিত ৫০টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ৪৩টি, জাতীয় পার্টি চারটি, বিএনপি একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে একটি আসন পাবে।

১৭ ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘোষণা করা হবে। তফসিল ঘোষণার আগে নির্বাচন কমিশন রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে চিঠি দিয়ে জানতে চাইবে, তারা একক, নাকি জোটগতভাবে নির্বাচন করবে। দলগুলোকে এ বিষয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত ৩০ জানুয়ারির মধ্যে জানাতে হবে। এরপর ইসি ১২ ফেব্রুয়ারি ভোটার তালিকা প্রণয়ন করবে। ১৭ ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘোষণা করা হবে। তফসিলে মনোনয়নপত্র দাখিল, মনোনয়নপত্র বাছাই ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় জানানো হবে।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রির কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় অন্যদের মধ্যে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, উপ-দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।

আজ ২৪ প্রতিবেদক, ঢাকা


%d bloggers like this: