ঢাকা, সোমবার , ২২ অক্টোবর ২০১৮, | ৭ কার্তিক ১৪২৫ | ১২ সফর ১৪৪০

সড়কে ঝরল আরো ১২ প্রাণ

রাত থেকে ভোর। আবার দুপুর। এই সময়ে দেশের সড়ক পথে ঝরল ১২ প্রাণ। আহত হয়ে হাসপাতালে এখন শতাধিক। আহতদের মধ্য থেকে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়ার খবর আসছে।

রোববার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে দুঘর্টনার শুরু বগুড়ায়। বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কের শেরপুর উপজেলার মহিপুর ও ধুনট মোড় এলাকায় দু’টি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত এবং কমপক্ষে ৪৫ জন যাত্রী আহত হন।

দুপুর সাড়ে ১২ টায় রংপুরে রংপুরের সিও বাজার এলাকায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়। এতে দুই বাসের প্রায় ৫০ যাত্রী আহত । এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় রয়েছেন কমপক্ষে ৫ জন। এদিকে গাজীপুরের শ্রীপরে লেগুনা উল্টে আহত হয়েছেন ১২ যাত্রী।
দু’দিন আগে বেসরকারি সংগঠন যাত্রী কল্যাণ সমিতি কোরবানির ঈদের মওসুমে দেশের সড়ক-মহাসড়কে ২৩৭টি দুর্ঘটনায় ২৫৯ জন নিহত এবং ৯৬০ জন আহত হয়েছে বলে তথ্য প্রকাশ করে।

রংপুর : রংপুরের সিও বাজার এলাকায় গতকাল দুপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরো ৪৩ জন। নিহতরা হলেন নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মৃত শহিদুল ইসলামের স্ত্রী নুর বানু (৪৪), সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী অমিজন নেছা (৪৬), গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের তালুকবর্মণ এলাকার রুবেল মিয়ার স্ত্রী রোখসানা বেগম (২৪), পঞ্চগড়ের শাহিন মিয়া (১২), পঞ্চড়ের তেঁতুলিয়া থানার কনস্টেবল মামুনের স্ত্রী সুমি আখতার (২৪) এবং অজ্ঞাত পরিচয় এক পুরুষ। আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে দুর্ঘঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে একটি তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব।

কোতয়ালী থানার ওসি মোখতারুল আলম জানান, বগুড়া থেকে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধাগামী বিআরটিসি একটি বাসের সঙ্গে ঠাকুরগাঁও থেকে রংপুরগামী একটি মিনি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় বাস দুটি রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে এবং বিআরটিসি বাসটি দুমড়েমুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজনের মৃত্যু হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর অজ্ঞাত পরিচয় এক পুরুষ ও তেঁতুলিয়া থানার কনস্টেবল মামুনের স্ত্রী সুমি আখতারের মৃত্যু হয়।

তিনি বলেন, দুটি বাসের চালক ও সহকারীরা পলাতক নাকি তারা আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন তা এখনও জানা যায়নি। তাদের সন্ধান করা হচ্ছে। দুর্ঘটনা কবলিত বাস দুটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। তবে ড্রাইভার ও হেলপারকে প্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।
রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) সাইফুর রহমান সাইফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেরপুর (বগুড়া) : শেরপুরে দুই সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত ও পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ৪০ জন আহত হয়েছেন। গত শনিবার মধ্যরাতে মহিপুর ও ধুনট মোড় এলাকায় এ দুটি দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার সংসারদিঘী গ্রামের ছাবেদ আলীর ছেলে জাহিদুল ইসলাম তাজ (৩৫), কাহালু উপজেলার মালঞ্চা গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে মিঠু (৩৮) ও গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাজুনিয়া পাড়া গ্রামের রঞ্জু শেখের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন (২২)। আহতদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার মো. রতন হোসেন জানান, শনিবার রাত ১২ টার দিকে মহাসড়কের মহিপুরে ঢাকাগামী এনা পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৭৯১৬) একটি কোচের সঙ্গে বগুড়াগামী চাঁদনী পরিবহনের বাসের (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-০১৯০) মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। এতে বাসচালক সহ ৩২ জন যাত্রী আহত হন। আহতদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। সেখানে চাঁদনী পরিবহনের বাসচালক মিঠু মারা যান।

অপরদিকে শনিবার রাত দেড়টার দিকে শেরপুর শহরের ধুনট মোড়ে একটি কাভার্ডভ্যানকে পিছন থেকে ধাক্কা দেয় এসআর পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৪৭৬৬)। এসময় গুরুতর আহত হন ৮ জন। আহতদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে এসআর পরিবহনের সুপারভাইজার তাজ (২৫) মারা যান।

চট্টগ্রাম : নগরীর লালখান বাজারে প্রাইভেট কারের ধাক্কায় মটরসাইকেল আরোহী ও সীতাকু-ে ট্রকের ধাক্কায় মানসিক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। সীতাকু-ের কদমরসুলে নিহত আমেনা বেগম এলাকার মৃত বাছা মিয়ার স্ত্রী ও মানসিক প্রতিবন্ধী।
ওসি মো. আহসান হাবীব বলেন, সকালে রাস্তা পার হওয়ার সময় চট্টগ্রামমুখী একটি ট্রাক ওই বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।
নগরীর লালখান বাজারে শনিবার রাতে নিহত তুষার দাশ (২৫) গোপাল দাশের ছেলে। তিনি বিএসআরএমে চাকরি করতেন। তার বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।
হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মোহাম্মদ আমীর বলেন, গুরুতর আহত তুষারকে হাসপাতালে আনা হলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নারায়ণগঞ্জ : সিদ্ধিরগঞ্জের পুল এলাকায় গতকাল সকালে বাসচাপায় মিনু আক্তার (৫৫) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। মিনু মুন্সিগঞ্জের উত্তর কামারগাঁও এলাকার আব্দুস সামাদের স্ত্রী। তিনি সিদ্ধিরগঞ্জের পুল এলাকায় বসবাস করেন।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাসেল আহমেদ জানান, সকালে পুল এলাকায় রাস্তা পার হচ্ছিলেন মিনু। এসময় আদমজী ইপিজেডের শ্রমিকদের বহনকারী বাস পেছন থেকে তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

শ্রীপুর (গাজীপুর) : ভবানীপুরের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে গতকাল সকালে যাত্রীবাহী একটি লেগুনা উল্টে ১২ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চারজনকে স্থানীয় কাজী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
দুর্ঘটনায় আহত সবাই বিভিন্ন পোশাক কারখানার শ্রমিক বলে জানা গেছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।
নাওজোর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই প্রদীপ কুমার মজুমদার জানান, চান্দনা চৌরাস্তা মোড় হতে একটি যাত্রীবাহী লেগুনা মাওনা চৌরাস্তায় যাচ্ছিল।

আজ ২৪ ডেস্ক


%d bloggers like this: